শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল করতে শিক্ষকদের ভূমিকা রাখতে হবে

0 1

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল করতে শিক্ষকদের ভূমিকা রাখতে হবে। আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করে ছাত্রছাত্রীদের মেধার বিকাশ ঘটাতে হবে। সেজন্য পাঠদানে বাস্তব উপযোগী বিষয় ও হাতে কলমে শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব বাড়াতে হবে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের স্বার্থে, ভবিষ্যতের স্বার্থে তাদের সব সময় বাস্তব জীবনের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে পারলে সেখানেই তার সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটবে।

 

 

মঙ্গলবার (১৭ মে) রাজধানীর সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজে ‘বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০২২’ এর জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, শিক্ষার্থীদের থিওরিটিক্যাল (তাত্ত্বিক) জ্ঞানের প্রতি আমরা এত বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি যে তারা বাস্তব ক্ষেত্রে নিরুৎসাহিত হয়ে পড়ছে। তারা মনে করছে কৃষিকাজ বা শারীরিক পরিশ্রমের মাধ্যমে যেসব কাজ করা হয় সেগুলো অশিক্ষিত মানুষের কাজ। যেহেতু তারা শিক্ষিত হচ্ছে, তাই তাদের দ্বারা এসব কাজ সম্ভব নয়। কিন্তু সেখানে তার লব্ধ জ্ঞানের মাধ্যমে নতুন কিছু উদ্ভাবনের সুযোগ রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের কর্মদক্ষতা, চিন্তা, প্রযুক্তির সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর সক্ষমতার যে আশীর্বাদ আমরা পেয়েছি, সেগুলো ধরে রাখতে হবে। না পারলে আমরা তাদের হারিয়ে ফেলব। তাই এসব বিষয়ে শিক্ষকদের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

অনুষ্ঠানে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন ও অর্থ) একে এম আফতাব হোসেন সভাপতিত্ব করেন। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাধ্যমিক ও শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশিক্ষণ) ও বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ- ২০২২ এর সদস্য সচিব প্রবীর কুমার ভট্টাচার্য।

 

 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলা একাডেমির সভাপতি সেলিনা হোসেন ও মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।