কোম্পানীগঞ্জে অটোরিকশা সমিতির নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে বিক্ষোভ

0 32

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট বাজারে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা সমিতির নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন ৫ শতাধিক রিকশা চালক।

মঙ্গলবার সকাল ১১টায় ভুক্তভোগী রিকশা চালকেরা কোম্পানীগঞ্জ ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা মালিক শ্রমিক সমবায় সমিতি লি. (প্রস্তাবিত) কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে সমিতির নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে এ বিক্ষোভ মিছিল করেন।

বিক্ষোভ মিছিলটি বসুরহাট বাজার প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা চত্বরে গিয়ে সমাবেশ করে। এ সময় কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জিয়াউল হক মীর’র কাছে চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে ৯ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আরিফুর রহমান বিক্ষোভ সমাবেশে ব্যাটারিচালিত রিকশায় চাঁদাবাজির বন্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে রিকশা চালকেরা তাদের কর্মসূচি স্থগিত করে।

চালকদের অভিযোগ, বসুরহাট পৌরসভার ট্রেড লাইসেন্স থাকা সত্ত্বেও প্রায় ৭০০ ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চালকের কাছ থেকে বাধ্য করে ভর্তি ফি বাবদ আদায় করা হয়েছে ৩‘শ টাকা করে এবং মাসিক চার্জ আদায় করা হয় ৩‘শ টাকা করে।

কোম্পানীগঞ্জ ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা মালিক শ্রমিক সমবায় সমিতি লি. (প্রস্তাবিত) এর সাধারণ সম্পাদক জগবন্ধু দুলাল চাঁদাবাজির অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে বলেন, আমাদের সমিতি বসুরহাট বাজারে যানজট নিরসনে কাজ করছে। সমিতির সদস্যদের ভর্তি ফি এবং মাসিক সার্ভিস চার্জ দিয়ে সমিতির লাইনম্যান এবং অফিস খরচ চালানো হয়। এ ছাড়াও আদায়কৃত অর্থ থেকে পঞ্চাশ টাকা সমিতির সদস্যের নামে তাদের সঞ্চয় হিসাবে জমা থাকে।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জিয়াউল হক মীর বলেন, অটোরিকশায় চাঁদাবাজির অভিযোগে এনে রিকশা চালকেরা ৯ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

ভুক্তভোগী অটোরিকশা চালকদের প্রতিনিধি দল ও রিকশা চালকদের অভিযোগ শুনেছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।