লক্ষ্মীপুরে পরিবহণ শ্রমিকদের ধর্মঘট, চরম দুর্ভোগে যাত্রীরা

100

সড়ক পরিবহণ আইনের কয়েকটি ধারা সংশোধনসহ ৮ দফা দাবিতে সারা দেশের মতো লক্ষ্মীপুরেও ধর্মঘট পালন করছেন পরিবহণ মালিক ও শ্রমিকরা। এতে দুর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা।
রোববার সকাল ৬টা থেকে বাস, ট্রাক, পিকআপভ্যান ও লেগুনা বন্ধ রেখে এ কর্মসূচি পালন করছেন তারা।
এদিকে সকালে লক্ষ্মীপুর বাস টার্মিনাল এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, দূরপাল্লার সব ধরনের বাস বন্ধ রাখা হয়েছে। খোলা হয়নি কোনো বাস কাউন্টার। বাস না পেয়ে অনেক যাত্রী বাড়ি ফিরে গেছেন।
এ ছাড়া শহরের দক্ষিণ তেমুহনী, উত্তর তেমুহনী ও ঝুমুর সিনেমা হল এলাকায় যাত্রীদের দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। জেলার অভ্যন্তরীণ রুটেও বাস-ট্রাক চলাচল করতে দেখা যায়নি। এতে যাত্রীদের চরম ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে।
অন্যদিকে বাস, মালবাহী ট্রাক ও পিকআপভ্যান চলাচল বন্ধ করতে শহরের বিভিন্ন স্থানে পরিবহন শ্রমিকরা অবস্থান করছেন। তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের কোথাও দেখা যায়নি।
বাসচালক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এ আন্দোলন সরকারের বিরুদ্ধে নয়। আমাদের স্বার্থরক্ষার জন্যই এ আন্দোলন করছি।
লক্ষ্মীপুর জেলা (দক্ষিণ) বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আল মাসুদ বলেন, সড়ক দুর্ঘটনার মামলা জামিনযোগ্য করতে হবে। চালকরা ৫ লাখ টাকা জরিমানা দিতে পারবে না। ৮ম শ্রেণি নয় চালকদের লাইসেন্সের জন্য ৫ম শ্রেণি পাসের আইন করতে হবে। এগুলোসহ ৮টি দাবি আদায়ে ধর্মঘট পালন করা হচ্ছে।
প্রসঙ্গত সড়ক পরিবহণ আইনের কয়েকটি ধারা সংশোধনসহ ৮ দফা দাবিতে শনিবার বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের পক্ষ থেকে ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত জানানো হয়।
এর আগে ১৯ সেপ্টেম্বর সংসদে পাস হয় সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮। এতে দুর্ঘটনাকবলিত যানবাহনের চালক জামিন পাবেন না বলে উল্লেখ করা হয়। একই সঙ্গে চালক অপরাধী হিসেবে প্রমাণিত হলে ৩০২ ধারায় ফাঁসির বিধান রাখা হয়।

আরও পড়ুন

অল্পদিনের মধ্যেই এখানকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গতিশীল হবে জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো অন্যায়, অবিচার, অনিয়ম ও চাঁদাবাজ আমার কাছে প্রশ্রয় পাবে না।

নিজ এলাকায় জনগণের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন এইচ এম ইব্রাহিম এমপি

মফস্বলে সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম।

মফস্বল সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ – এইচ এম ইব্রাহিম

এইচ এম ইব্রাহিম বলেন,আমার নির্বাচনী এলাকার অসুবিধাগ্রস্থ মানুষদের মাঝে অতীতের ন্যায় এবারও আমি শীতবস্ত্র বিতরণ করেছি। আমার নেতাকর্মীদের মাধ্যমে আমি প্রায় পঞ্চাশ হাজার পরিবারের কাছে এই শীতবস্ত্র পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছি।

নোয়াখালী-১ আসনে এইচ এম ইব্রাহিম এমপির শীতবস্ত্র বিতরণ

গ্রেপ্তার হওয়া মোশারফ হোসেন টিটু (২২) কবিরহাট থানার সুন্দলপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের লাতু সওদাগর বাড়ির মৃত মিয়াধনের ছেলে। সে পেশায় একজন মোবাইল মেকানিক।

কবিরহাটে ভাবির ব্যক্তিগত ভিডিও নিয়ে দেবর গ্রেপ্তার

Comments are closed.