ফেনীতে বিদেশ ফেরত ১০ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

0 ৩৩

করোনার হুমকি মোকাবিলায় ফেনীতে বিদেশফেরত ১০ ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

বুধবার (১১ মার্চ) বিকেলে ৫টার দিকে জেলা সিভিল সার্জন ডা. সাজ্জাদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, বুধবার বিদেশ থেকে ফেনীতে ফিরেছেন এমন ১০ ব্যক্তিকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। করোনা ভাইরাসের হুমকি মোকাবিলায় ও ফেনীর জনমানুষের স্বাস্থ্যনিরাপত্তায় এটি জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ওই ১০ জনের মধ্যে মঙ্গলবার ইতালি থেকে ৮ জন, কুয়েত থেকে ১ জন ও চীন থেকে ১ জন ফেনীতে এসেছেন। তাদের ব্যাপারে ঢাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর থেকে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগকে জানানো হয়।

তিনি আরও জানান, বিমানবন্দরে ১০ জনের কারো শরীরে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ পাওয়া যায়নি। তবু সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে প্রত্যেকের ১৪ দিন পারিবারিক কোয়ারেন্টাইনে থাকা নিশ্চিত করা হয়েছে।

কোয়ারেন্টাইন প্রসঙ্গে সিভিল সার্জন বলেন, কোয়ারেন্টাইন হচ্ছে ১৪ দিনের বিশেষ পর্যবেক্ষণ ব্যবস্থা। বিদেশ থেকে এসেছে এমন ব্যক্তিকে নিজস্ব বাথরুমসহ একটি কক্ষে রাখা হয়। সাধারণত ১৪ দিনের মধ্যে মানুষের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ দেখা দেয়। তাই জনস্বার্থে প্রবাসীদের এ বিশেষ ব্যবস্থা মেনে চলা উচিত। ১৪ দিনের মধ্যে তাদের কারো শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ দেখা গেলে সরকারিভাবে সবধরনের চিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দেশে সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জানান সিভিল সার্জন।

এর আগে মঙ্গলবার সিভিল সার্জন কার্যালয়ে করোনা ভাইরাস বিষয়ক অবহিতকরণ সভায় ফেনীতে সম্ভাব্য করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় ১০৫ শয্যার বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানানো হয়। এর মধ্যে ফেনী জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেটেড ওয়ার্ডে আছে ৩০ বেড, মহিপালে ট্রমা সেন্টারে ৩০ বেড, সোনাগাজীর মঙ্গলকান্দি কমপ্লেক্সে ২০ বেড ও ৫ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আছে ৫টি করে মোট ২৫টি বেড।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।