প্রক্টরের পদত্যাগ দাবিতে অবস্থান ধর্মঘট

80

কোনো নির্দিষ্ট অভিযোগ না দেখিয়ে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) বিভিন্ন বিভাগের সাত শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করায় এবং এ বিষয়ে আলোচনা করতে গেলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মুশফিকুর রহমানের পদত্যাগ দাবিতে অবস্থান ধর্মঘট পালন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।
বুধবার সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে ভবনের সামনে শিক্ষার্থীরা অবস্থান নেয়। পরে তারা উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করেন। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ঘটনাস্থলে সুধারাম মডেল থানা পুলিশ অবস্থান করে। তবে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে তারা হস্তক্ষেপ করেনি।
সাধারণ শিক্ষার্থীরা জানায়, গত ৪ মার্চ সুনির্দিষ্ট অভিযোগ না দেখিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) বিভিন্ন বিভাগের সাত শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়। এ বিষয়ে কয়েকবার প্রক্টর মুশফিকুর রহমানের সঙ্গে দেখা করতে চাইলে তিনি শিক্ষার্থীদের এড়িয়ে যান। সর্বশেষ গতকাল মঙ্গলবার প্রক্টরের সঙ্গে আলোচনা করতে গেলে তিনি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন।
শিক্ষার্থীরা আরো অভিযোগ করেন, মুশফিকুর রহমান প্রক্টর হওয়ার পর থেকে সবসময় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করে আসছেন। তিনি সামান্য ঘটনা ঘটলে বা তার মতের বাইরে গেলে সাধারণ শিক্ষার্থীদের একাডেমিকভাবে হয়রানি করেন। এ বিষয়ে প্রক্টর মুশফিকুর রহমানের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়। তবে তাকে পাওয়া যায়নি।
উপাচার্য ড. এম অহিদুজ্জামান জানান, শিক্ষার্থীরা সন্তানের মতো। কিন্তু সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে ভূত আছর করেছে। তাদের মধ্যে শিবির ও সন্ত্রাসী চক্রের অপশক্তি ঢুকে পড়েছে। তারা শান্তিপ্রিয় নোবিপ্রবি ক্যাম্পাসকে অশান্ত করার ষড়যন্ত্র করছে। তারা প্রশাসনিকভাবে কঠোর অবস্থানে আছেন। কোনো অপশক্তিকে ছাড় দেওয়া হবে না।

আরও পড়ুন

এ সময় বক্তারা আদালতের রায় ও ডাক্তারের চিকিৎসা পত্র বাংলা ভাষায় লিপিবদ্ধ করার জন্য জোরালো দাবি জানান।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

অল্পদিনের মধ্যেই এখানকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গতিশীল হবে জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো অন্যায়, অবিচার, অনিয়ম ও চাঁদাবাজ আমার কাছে প্রশ্রয় পাবে না।

নিজ এলাকায় জনগণের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন এইচ এম ইব্রাহিম এমপি

মফস্বলে সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম।

মফস্বল সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ – এইচ এম ইব্রাহিম

এইচ এম ইব্রাহিম বলেন,আমার নির্বাচনী এলাকার অসুবিধাগ্রস্থ মানুষদের মাঝে অতীতের ন্যায় এবারও আমি শীতবস্ত্র বিতরণ করেছি। আমার নেতাকর্মীদের মাধ্যমে আমি প্রায় পঞ্চাশ হাজার পরিবারের কাছে এই শীতবস্ত্র পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছি।

নোয়াখালী-১ আসনে এইচ এম ইব্রাহিম এমপির শীতবস্ত্র বিতরণ

গ্রেপ্তার হওয়া মোশারফ হোসেন টিটু (২২) কবিরহাট থানার সুন্দলপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের লাতু সওদাগর বাড়ির মৃত মিয়াধনের ছেলে। সে পেশায় একজন মোবাইল মেকানিক।

কবিরহাটে ভাবির ব্যক্তিগত ভিডিও নিয়ে দেবর গ্রেপ্তার

Comments are closed.