নোয়াখালীতে যুবদলের কমিটি গঠন, তৃণমূলের প্রত্যাখ্যান গণপদত্যাগের ঘোষণা

কমিটি বানিজ্যের অভিযোগ জেলা ও কেন্দ্রীয় যুবদলের বিরুদ্ধে!

0 442

নোয়াখালী জেলার চাটখিল ও সোনাইমুড়ী উপজেলার যুবদলের আহ্বায়ক কমিটি নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। বিতর্কিতদের নিয়ে আহ্বায়ক কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে উপজেলা যবুদলের কোন্দল এখন প্রকাশ্য রূপ নিয়েছে।

• সাধারন নেতাকর্মীদের মধ্যে চরম ক্ষোভ এবং গণপদত্যাগের হুশিয়ারি।

• কমিটি প্রত্যাখ্যান করে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধনের ঘোষণা।

অধিকাংশ নেতাকর্মী অভিযোগ করে বলেন, গঠনতন্ত্র অনুসরণ না করেই মনগড়া আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

রাজপথে দলের আন্দোলন সংগ্রামে, মিছিল-মিটিং -এ সংক্রিয় ভূমিকা রাখা, শাসকদলের হামলা-মামলা, নির্যাতনের শিকার হওয়া নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে টাকার বিনিময়ে দলের মিটিং মিছিলে না থাকা লোকজনকে কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে,  অভিযোগ আছে জেলা যুবদলের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নেতারা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে কমিটিতে বির্তকিতদের পদায়ন করেন।

এর আগে, জহির উদ্দীন বাবরকে আহ্বায়ক ও বেলায়েত হোসেন শামীমকে সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব দিয়ে চাটখিল উপজেলা এবং জসিম উদ্দিনকে আহ্বায়ক ও ইব্রাহীম খলিল ভূইয়াকে সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব দিয়ে সোনাইমুড়ী উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দেয় জেলা কমিটি।

সম্প্রতি যুবদলের আহ্বায়ক কমিটি গঠন নিয়ে উপজেলা দু’টির যুবদলের কোন্দলে ভিন্নমাত্রা যুক্ত হয়। তাদের দাবী যোগ্যদের অবমূল্যায়ন করে যে কমিটি হয়েছে তা বাতিল করতে হবে। সেই সাথে কমিটি বাণিজ্য হচ্ছে বলে অভিযোগ করে অনেকে বলেন তৃণমূলের কমিটি নির্ধারণে কেন্দ্রীয় নেতাদের সুদৃষ্টি থাকতে হবে।

আরও পড়ুন

গণমাধ্যমে তথ্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞা জারি সংবিধানের মৌলিক অধিকার পরিপন্থী।

তথ্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞা,গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় সরাসরি হস্তক্ষেপ : ব্যারিস্টার মাহবুব…

ফজলুর রহমান মধু (৩৬) নোয়াখালী চাটখিল উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়ন শ্রীপুর গ্রামের সাব মিয়ার ছেলে।

পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী অথচ মানতে নারাজ এলাকার মানুষ

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।