তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগানোর প্রত্যয় লক্ষ্মীপুরে

0 129

‘তারুণ্যেই শক্তি, তারুণ্যেই মুক্তি’ স্লোগানকে বুকে ধারণ করে লক্ষ্মীপুরে হয়ে গেলো ‘তারুণ্যের চোখে কেমন বাংলাদেশ চাই?’ শীর্ষক আড্ডা। গত ১৩ মে রোববার বিকেলে লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজে সার্বজনীন সহযোগিতা পরিষদেও (সাসপ) এর উদ্যোগে এ ব্যতিক্রমী আড্ডার আয়োজন করা হয়।
এতে অতিথি ছিলেন কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. মাইন উদ্দিন পাঠান, নোয়াখালী ম্যাটসের সাবেক অধ্যক্ষ ডা. মো. সালাহ উদ্দিন শরীফ, নো ভেট অন এ্যাডুকেশন আন্দোলনের উদোক্তা ও প্রশ্ন ফাঁস রোধে ‘এসিএসডিইএম’ মডেলের আবিষ্কারক লক্ষ্মীপুরের তারুণ্য ইঞ্জিনিয়ার আরিফ চৌধুরী শুভ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সাংস্কৃতিক কমান্ডের সভাপতি কবি আমির হোসেন মোল্লা, কলেজ ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক মো. শরীফ হোসাইন।
এসময় অতিথিরা তাদের জীবনের স্মৃতি এবং উঠে আসার গল্প তরুণদের শোনান। আড্ডায় উপস্থিত ছিলেন তরুণ সংগঠক শিমু আক্তার, রাজু আহমেদ, মাছুম জুলকার নাইন, আলতাফ হোসেন সুমন, আবদুল্লাহ আল মামুন, ইশিতা ভৌমিক, মেহজাবিন প্রাপ্তিসহ কলেজ ও স্কুল পর্যায়ের পড়ুয়ারা। এক পর্যায়ে তরুণদের মধ্য থেকে অতিথিদের তারুণ্যের কর্তব্য ও তরুণদের উন্নয়নে নানান মুখি প্রশ্ন করা হয়।
প্রশ্নোত্তর পর্বে অতিথিরা বলেন, ‘বাঙালি জাতীয়তাবাদের চেতনা প্রতিষ্ঠার আন্দোলন, স্বাধীনতা সংগ্রাম, প্রশ্ন ফাঁস রোধে মডেল উদ্ভাবন, শিক্ষাখাতে ভ্যাট আন্দোলন, কোটা সংস্কার আন্দোলনে তরুণদের জাগরণ বিশ্ববাসী অবাক হয়েছে। তরুণরাই জানান দিয়েছে, তারা পারে। তারুণ্যের এ শক্তিকে টিকিয়ে রাখতে হবে। সমাজকে কিছু দেওয়ার জন্য এ তরুণদের সজাগ থাকতে হবে।’
অনুষ্ঠান শেষে অতিথি ও সংগঠকদের সম্মাননা স্মারক দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, তরুণ লেখক মাছুম জুলকার নাইনের প্রচেষ্টায় সংগঠনটি গড়ে ওঠে। তরুণদের নিয়ে কাজ করার অংশ হিসেবে এ আড্ডা।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।