জননী বাসে ছাত্রী হেনস্থা, চাকরী গেলো সুপারভাইজারের

0 272

নোয়াখালীর চাটখিল-সোনাপুরের বহুল আলোচিত জাননী বাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন ছাত্রীকে হেনস্থা করায় শিক্ষার্থীরা জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে এবং তারই প্রেক্ষিতে জননী বাসের অভিযুক্ত সুপারভাইজার চাকিরচ্যুত হয়েছে।

.

গতকাল বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) জেলা প্রশাসকের হস্থক্ষেপে স্থানীয় বাস মালিক সমিতি কতৃপক্ষ অভিযুক্ত সুপারভাইজার’কে তলব করে এবং অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে মারধর করে চাকরিচ্যুত করেছে। পরে অবশ্য ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের কাছে কৃতকর্মের জন্য নিঃশর্ত ক্ষামা চাওয়ায় চাকরি ফিরে পেয়েছে অভিযুক্ত সুপারভাইজার।

ঘটনার সূত্রপাত গত ১১ই মার্চ বুধবার: নোয়াখালী সরকারি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের-শেষ বর্ষের তিন ছাত্রী বাসে অতিরিক্ত ভাড়া প্রদান করতে অপারগতা জানালে বাসের সুপারভাইজার ওই শিক্ষার্থীদের সাথে গালমন্দ ও অসদাচারন করে। এসময় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা প্রশাসন বা পুলিশের কাছে অভিযোগ করার কথা বলতেই পুলিশ ও প্রশাসনকে নিয়েও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করতে দিধাবোধ করেনি জননী বাসের সুপারভাইজার। বাস থেকে নেমে অন্য শিক্ষার্থীদের সহায়তায় গাড়ির নাম্বার সহ তারা জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগপত্র এবং পাশাপাশি অযথা ভাড়া বাড়ানোয় স্মারকলিপি জমা দেন।

জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগপত্র ও অযথা ভাড়া বাড়ানোয় স্মারকলিপি জমা দেন শিক্ষার্থীরা।

. জেলা প্রশাসক জনাব তন্ময় দাস তাৎক্ষণিক বিষয়টি মোটরজান পরিদর্ষকের মাধ্যমে জননী বাস কতৃপক্ষ’কে (বাস মালিক সমিতি) অভিহিত করেন। জেলা প্রশাসকের নির্দেষ পেয়ে জননী বাস কতৃপক্ষ (বাস মালিক সমিতি) অভিযুক্ত সুপারভাইজার’কে ঢেকে এনে ঘটনার প্রমাণ পেয়ে মারধর ও চাকরিচ্যুত করেন। পরে অভিযুক্ত সুপারভাইজার ভুক্তভোগী ছাত্রীদের কাছে (মোবাইল ফোনে কল করে) নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করে এবং ভিবষ্যতে এমনটা না করার অঙ্গিকার করায় শিক্ষার্থীরা চাকরি ফিরিয়ে দিতে বাস মালিক সমিতিকে অনুরোধ করে।

আরো পড়ুন….

চাটখিলে ইউ.এন.ও বরাবর ‍শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি প্রদান

প্রসঙ্গত বেশ কিছুদিন থেকেই জননী পরিবহন তাদের গাড়িগুলোর খানিকটা বহিরাবরণ পনিবর্তন করে নাম দিয়েছে ‘জননী প্লাস’ এবং অযথা ভাড়া বৃদ্ধি করে জনসাধারনের রোসানলে পড়েছে। তারই সাথে এখন জননী বাসের হেল্পার-সুপারভাইজারদের বিরুদ্ধে বাসে নারী ও শিক্ষার্থীদের সাথে অসদাচার সহ বিভিন্ন অভিযোগ উঠছে। এব্যাপরে বাস মালিক সমিতি বা জননী কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলে তারা কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।