হারুনুর রশিদ মোল্লার নৃশংস হত্যাকান্ডের ঘটনায় বিএনপি শীর্ষনেতাদের ক্ষোভ

0 524

নোয়াখালী সদর উপজেলার আন্ডারচর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ মোল্লাকে (৫০) গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পশ্চিম মাইজচরা গ্রামে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নৃশংস এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় বৃহত্তর নোয়াখালীর সাবেক সকল সংসদ সদস্য বিএনপির সহ-সভাপতি বরকত উল্লাহ্ ভুলু, বিএনপির সহ- সভাপতি শাজাহান, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা জয়নুল আবেদীন ফারুক, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অধ্যাপক জয়নাল আবেদীন (ভিপি ফারুক), বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূঁইয়া, প্রকৌশলী ফজলুল আজিম, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, বিএনপির সহ-শিল্প বিষয়ক সম্পাদক এ বি এম আশরাফ উদ্দিন নিজাম, রামগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি নাজিম উদ্দিন আহমেদ যৌথভাবে বিবৃতি দেন।

বিবৃতিতে ক্ষুব্ধ নেতারা বলেন, সারাদেশে বিএনপি নেতা-কর্মীদের উপর যেভাবে গুম,খুন,নির্যাতন চালানো হচ্ছে হারুনুর রশিদ মোল্লার হত্যাকান্ড তারই ধারাবাহিকতার অংশ।

আজ মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক যৌথ বিবৃতিতে ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন এসব কথা বলেন

আমরা মনে করি এটি একটি সুপরিকল্পিত রাজনৈতিক হত্যাকান্ড। এধরণের ঘৃণ্য রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানাই। সেই সাথে অপরাধীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করার দাবি জানাচ্ছি। বিবৃতিতে নেতারা বৃহত্তর নোয়াখালী থেকে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে প্রশাসনকে অনুরোধ জানান।

আরও পড়ুন

এপর্যন্ত তিনি প্রায় হাজারখানেক কবিতা, গান,নাটক ও ছোটগল্প রচনা করেন।

প্রেম ভাতৃত্ব ও বঞ্চনার কবি ইমামুল হাসান তোহা

রাষ্ট্রপতি জিয়ার লাশ সরানোর চেষ্টা করলে তার সৈনিকরা ঘরে বসে থাকবে না।

চাটখিলে বিএনপির ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

গণমাধ্যমে তথ্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞা জারি সংবিধানের মৌলিক অধিকার পরিপন্থী।

তথ্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞা,গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় সরাসরি হস্তক্ষেপ : ব্যারিস্টার মাহবুব…

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।