সোনাইমুড়ীতে বসতঘরে সন্ত্রাসী হামলায় আহত ১

0 ৩০

সোনাইমুড়ীতে বসতঘরে সন্ত্রাসী হামলায় আহত ১নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে বসতঘর ভাংচুর ও সন্ত্রাসী হামলায় তাজনেহার বেগম (৬০) নামে এক বৃদ্ধা গুরতর আহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার দেউটি ইউনিয়নের সবর উল্যা হাজ্বী বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।
এই ঘটনায় নোয়খালী মেজিস্ট্রেট কোর্টে একটি মামলা হয়েছে।
মামলা ও ভুক্তভোগী সুত্রে জানা যায়, সবর উল্যা হাজ্বী বাড়ীর মৃত নূর হোসেন তার মেয়ে তাজনেহারকে জীবিত থাকা থাকা অবস্থায় দেউটি মৌজার ১৭৮ নং খতিয়ানের ৭৫৪.৭৫৯ দাগে ৬ শতাংশ জমি কবলা করে দেয়। তাজনেহারের বাবার মৃত্যাুর পর তার ভাইয়েরা স্বীকার করলেও ভাইয়ের ছেলে প্রভাবশালী আলাউদ্দিন ও জাহাঙ্গীর আলম বিষয়টি অস্বীকার করে। এই নিয়ে তাদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। এরইজের ধরে মৃত ইসমাইলের ছেলে আলাউদ্দিন ও আনোয়ার উল্যার ছেলে জাহাঙ্গীর বৃহস্পতিবার সকালে মুখোশধারী একদল সন্ত্রাসী তান্ডব চালিয়ে তাজনেহারের ঘর উচ্ছের লক্ষে ভাংচুর করে। এসময় বাধা দিতে আসলে তাজনেহারের ছেলেকে মারধর ও সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাজনেহার বেগম গুরতর আহত হয়। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র নিয়ে যাওয়া হয়।
আহত তাজনেহারের ছেলে রুবেল জানান, খবর পেয়ে হামলার পূর্বে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে, আমাদের দলিলপত্র সঠিক ও ৩০ বছর ধরে দখলে থাকা সত্ত্বেও পুলিশ তাদের পক্ষে কথাবলে চলে যায়। এর পরপরই সন্ত্রসীরা তান্ডব চালায়ি বসতঘর ভাংচুর করে এবং আমাদের উপর হামলা করে।
সোনাইমুড়ী থানার ওসি আব্দুস সামাদ জানান, বিষয়টি নিয়ে সন্ধায় থানায় বসার কথা ছিলো কিন্তু এর আগেই তারা দুই পক্ষ মারামারীতে লিপ্ত হয়ে পড়ে। তবে তদন্ত করে অন্যায়কারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
Loading...