সেনবাগে গ্রাহকের কোটি টাকা নিয়ে উধাও দ্বীপশিখা উন্নয়ন সংস্থা

146

নোয়াখালীর সেনবাগে কয়েকশত নিরীহ মানুষকে ঋণ দেওয়ার কথা বলে কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে দ্বীপশিখা উন্নয়ন সংস্থার নামের একটি এনজিও। ঘটনাটি ঘটেছে ২৮ জানুয়ারি রবিবার দুপুরে সেনবাগ পৌরসভার কলেজ রোড সংলগ্ন উত্তর সাহাপুর গ্রামে।
প্রতারণার শিকার সেনবাগ পৌরসভার কাদরা ৫নং ওয়ার্ডের খোকনের স্ত্রী হাসিনা আক্তার জানায়, গত ১০ দিন আগে দ্বীপশিখা উন্নয়ন সংস্থা নামের ওই এনজিও কর্মকর্তা মামুন ঋণ দিবে বলে প্রথম সপ্তাহে একশত টাকা করে সদস্য সংগ্রহ করে। পরবর্তীতে ৫ হাজার টাকা ডিপোজিটের বিনিময়ে ৫০ হাজার টাকা ও ১০ হাজার টাকা ডিপোজিটের বিনিময়ে ১ লাখ টাকা দিবে বলে টাকা জমা নেন। এরপর রোববার দুপুরে গ্রাহকরা ঋণের টাকার জন্য এসে দেখেন অফিসের প্রধান ফটকের কলাপসিবল গেইটে তালা ঝুলছে। এই খবর দ্রুত চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে অন্যান্য ঋণ প্রত্যাশী গ্রাহকরা কার্যালয়টির সামনে ভীড় জমান। এরপর তারা সেনবাগ থানায় গিয়ে বিষয়টি ওসিকে অবহিত করেন। প্রতারণার শিকার আরেক গ্রাহক মিজানুর রহমানজানান, তার স্ত্রী জেসমিন আক্তার জবা মহিলা সমিতির সদস্য হয়ে ঋণের জন্য ৫ হাজার টাকা জমা দেন কিন্তু রোববার দুপুরে গিয়ে দেখেন অফিসটির গেইট বন্ধ করে কর্মকর্তারা ফাইলপত্র রেখে গ্রহকদের জমা করা টাকা দিয়ে পালিয়ে গেছে। এভাবে প্রতারিত আরো গ্রাহকগণ হলেন সেনবাগের ৪ নং কাদরা ইউপির চাঁদপুর গ্রামের শাপলা মহিলা সমিতির মনোয়ারা ও আফরোজা। সোমবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ওই অফিসে গ্রাহকরা আসলেও এতে তালা বন্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা গেছে।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করলে সেনবাগ উপজেলা সমবায় অফিসার একেএম মহিন উদ্দিন জানান, এ ধরণের কোন এনজিও সেনবাগে নেই। তিনি এলাকাবাসীকে সর্তক করে জানান, কোন নতুন এনজিও এলাকায় এসে কার্যক্রম শুরু করলে তারা নিবন্ধিত কিনা সে বিষয়ে উপজেলা সমবায় অফিস, সমাজসেবা অফিস ও নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন। স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, সেনবাগের ৫নং অর্জুনতলা ইউনিয়নের জৈনিক খোকন তার ইটের দেওয়াল ও টিন ছাউনি দেওয়া বাড়িটি বিক্রির জন্য সাইনবোর্ড ঝুলান। এরপর সেনবাগ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের আনোয়ার হোসেন ওই বাড়িটি ভাড়া নিয়ে এ এনজিওটির নিকট ভাড়া দেয়। গ্রাহকরা তাদের টাকাকড়ি হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে। দ্বীপশিখা উন্নয়ন সংস্থার স্থায়ী ঠিকানা উল্লেখ করা হয়েছে সিটি কমপ্লেক্স সার্কুলার রোড, দিলকুশা মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০২। এর রেজিস্ট্রেশন নং-১২০।

আরও পড়ুন

বিশেষ মেহমান হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বিএম এর নোয়াখালী জেলার সভাপতি ডাঃ এম এ নোমান,চাটখিল কামিল (এম.এ) মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মেহেদী হাছান রুবেল ভূঁইয়া।

চাটখিলে ডিয়ার ছোয়াদ এজেন্সির হজ্জ প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি মো.মেহেদী হাছান (রুবেল ভূঁইয়া) উপস্থিত নেতৃবৃন্দকে প্রতিষ্ঠানের চলমান উন্নয়ন এবং মাঠ সম্প্রসারণের কাজ সম্পর্কে অবগত করেন এবং মাদ্রাসা ক্যাম্পাস ঘুরিয়ে দেখান।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসার উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন-এইচ এম ইব্রাহিম

মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি মো.মেহেদী হাছান রুবেল ভূঁইয়া বলেন,ঐতিহ্যবাহী চাটখিল কামিল মাদ্রাসা একটি শতবর্ষী প্রতিষ্ঠান।জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৪ এ প্রতিষ্ঠানটি উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসা শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুর ১টার দিকে বাতাসে লাশের দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে থাকে। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে লামচর গ্রামের সর্দার বাড়ি সংলগ্ন ডোবায় অর্ধগলিত একটি মরদেহ দেখতে পায় তারা।

চাটখিলে বৃদ্ধের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার

বেলায়েত হোসেন আশা করেন দলীয় নেতৃবৃন্দ ও তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সহযোগিতায় সর্বসাধারনের ভালোবাসায় তিনি বিপুল ভোটে চাটখিল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন।

চাটখিলে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বেলায়েত এর মতবিনিময়

Comments are closed.