সুবর্ণচরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ১০

128
অাহতদের ছবি
রোববার সকালে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরবাটা ইউনিয়নের পশ্চিম চরবাটা গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ভয়বহ সংঘর্ষে জমির মালিক জয়নাল মিয়াসহ অন্তত ১০জন আহত হয়েছে। আহতদের নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
সোমবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষী সুত্রে জানা যায়, বিগত দুই বছর যাবৎ প্রতিপক্ষ মোঃ কেফায়েত উল্যাহ ও সহদর হেদায়েত উল্যার সাথে জমি নিয়ে বিরোধ চলছে, একাধিকবার এনিয়ে দেনদবার হলেও বিষয়টি সুরাহা হয়নি। বরং তারা জমির মালিককে নানা ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে।
ভাংচুরকৃত ঘরের ধংশাবশেষ
ঘটনার দিন রোববার অভিযুক্ত কেফায়েত উল্যাহ ও হেদায়েত উল্যাহসহ স্থানীয় এবং বহিরাগত প্রায় অর্ধশতাধিক ভাডাটিয়া লোকজন নিয়ে মোঃ জয়নাল আবেদীন মিয়ার চাষকৃত জমিতে আগাম জাতের আমন কাটা শুরু করে। এমতাবস্থায় জমির মালিক জয়নাল মিয়া বাধা দিতে চেষ্ঠা করিলে দুই সহোদর ভাইয়ের ভাড়াটিয়া লোকজন জয়নাল মিয়ার উপর হামলা চালায়, এবং এতে জয়নাল মিয়ার বসতঘর ভাংচুরসহ সন্ত্রাসী কর্মজজ্ঞে বাধা দিতে আসা অন্তত ১০জন কে এলাপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করেন।
এমতাবস্থায় জয়নাল মিয়া আইনের আশ্রয় নিতে থানায় যেতে চাইলে তাদেরকে থানায় যেতে বাধা দেয়।পরে জয়নাল মিয়া তার ভাগিনা মোঃ দিাদারুল আলমকে দিয়ে স্থানীয় চরজব্বার থানায় অভিযোগ করান।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মামলার উপ-পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম প্রতিবেদককে জানান, ঘটনায় থানায় অভিযোগ করার সাথে সাথে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি সরে জমিনে পর্যবেক্ষন করি। এবং পরবর্তিতে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়ার আস্বাস ও দেন এ কর্মকর্তা।
অন্যদিকে সুবর্ণচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক আহতদের চিকিৎসা দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আহত মোঃ মাইন উদ্দিন ,অলি উদ্দিন(মিলন), বেলাল উদ্দিন ও ছালা উদ্দিনের অবস্থা গুরুতর ছিলো। এখন মোটামুটি সঙ্কামুক্ত বলেও জানান তিনি।
তবে অভিযুক্ত মোঃ কেফায়েত ঊল্যাহ ও সহোদর ভাই হেদায়েত উল্যাহর সাথে সরাসরি দেখা মেলেনি এবং মুঠোফোনে বিষয়টি জানতে চাওয়ার চেষ্টা করেও তাদের মুঠোফোনে সংযোগ দেয়া সম্ভব হয়নি।
আরও পড়ুন

বিশেষ মেহমান হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বিএম এর নোয়াখালী জেলার সভাপতি ডাঃ এম এ নোমান,চাটখিল কামিল (এম.এ) মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মেহেদী হাছান রুবেল ভূঁইয়া।

চাটখিলে ডিয়ার ছোয়াদ এজেন্সির হজ্জ প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি মো.মেহেদী হাছান (রুবেল ভূঁইয়া) উপস্থিত নেতৃবৃন্দকে প্রতিষ্ঠানের চলমান উন্নয়ন এবং মাঠ সম্প্রসারণের কাজ সম্পর্কে অবগত করেন এবং মাদ্রাসা ক্যাম্পাস ঘুরিয়ে দেখান।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসার উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন-এইচ এম ইব্রাহিম

মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি মো.মেহেদী হাছান রুবেল ভূঁইয়া বলেন,ঐতিহ্যবাহী চাটখিল কামিল মাদ্রাসা একটি শতবর্ষী প্রতিষ্ঠান।জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৪ এ প্রতিষ্ঠানটি উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসা শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুর ১টার দিকে বাতাসে লাশের দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে থাকে। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে লামচর গ্রামের সর্দার বাড়ি সংলগ্ন ডোবায় অর্ধগলিত একটি মরদেহ দেখতে পায় তারা।

চাটখিলে বৃদ্ধের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার

বেলায়েত হোসেন আশা করেন দলীয় নেতৃবৃন্দ ও তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সহযোগিতায় সর্বসাধারনের ভালোবাসায় তিনি বিপুল ভোটে চাটখিল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন।

চাটখিলে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বেলায়েত এর মতবিনিময়

Comments are closed.