লাঙ্গল ছেড়ে ধানের শীষে জাপা নেতারা

246
লাঙ্গল ছেড়ে ধানের শীষে জাপা নেতারা

লাগামহীন মনোনয়ন বানিজ্যে ক্ষুব্ধ হয়ে জাতীয় পার্টির মনোনয়নবঞ্চিত নেতারা একে একে দল ছাড়ছেন। বিক্ষুব্ধ এসব লাঙ্গল ছেড়ে হাতে ধানের শীষ নিচ্ছেন। দল ছাড়ার অংশ হিসেবে বুধবার পদত্যাগ করেছেন দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গাইবান্ধা জেলার সভাপতি আব্দুর রশীদ সরকার।

জাতীয় পার্টির মনোনয়নের চিঠি না পেয়ে তিনি জাতীয় পার্টি ছেড়ে বিএনপিতে যোগ দিয়েই ধানের শীষের চিঠি পেয়ে মনোনয়নপত্রও জমা দিয়েছেন। আব্দুর রশীদ সরকার বিগত ১৯৯১ ও ১৯৯৬ সালে গাইবান্ধা-২ আসন থেকে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

এ বিষয়ে আব্দুর রশীদ সরকার অভিযোগ করে বলেছেন, গাইবান্ধা-২ আসনে মনোনয়ন না পেয়ে তিনি দলত্যাগ করেছেন। কেবল ‘টাকার অঙ্ক কমে যাওয়ায়’ জাপা তাকে ২০০১ সালে মনোনয়ন দেয়নি। ২০০৮-এও মনোনয়ন দেয়া হয়নি। পরে আমার হাত ধরে পার্টিতে যারা এসেছে, তাদেরও মনোনয়ন দেয়া হয়েছে, অথচ আমাকে অবজ্ঞা করা হয়েছে। আমি পার্টির জন্য অনেক করেছি, টাকা খরচ করেছি। আর কত? আমি আর পারছিলাম না।

জাতীয় পার্টির নেতাদের অভিযোগ, এবারের নির্বাচনকে ঘিরে দলটির মহাসচিবসহ বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী নেতা প্রার্থী মনোনয়নে বিপুল অঙ্কের টাকার লেনদেন করেছেন বলে একাধিক মনোনয়নপ্রত্যাশী এ অভিযোগ তুলেছেন।

এদিকে জাতীয় পার্টির আরেক প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সেন্টুও পদত্যাগ করবেন বলে জানিয়েছেন। তিনি ঢাকা-১৩ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন।

গত বুধবার জাতীয় পার্টি যে প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করে, তাতে তার নাম রয়েছে। তবে ওইদিন সন্ধ্যায় যখন সেন্টুর কাছে মনোনয়নের চিঠি পৌঁছানো হয়, ততক্ষণে মনোনয়নপত্র জমার সময় শেষ। এতে ক্ষুব্ধ শফিকুল ইসলাম সেন্টু বৃহস্পতিবার সকালে বনানীতে দলের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সমর্থকদের নিয়ে মহড়া দেন। তার সমর্থকরা কার্যালয়ের সামনে শ্লোগানও দেন। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি ঠেকাতে পরে সেখানে পুলিশের সংখ্যা বাড়ানো হয়।

এ সময় সেন্টু সাংবাদিকদের বলেন, মনোনয়নের চিঠি না পেয়ে তিনি দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। দুই-একদিনের মধ্যেই পদত্যাগের চিঠি দেবেন বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুন

বিশেষ মেহমান হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বিএম এর নোয়াখালী জেলার সভাপতি ডাঃ এম এ নোমান,চাটখিল কামিল (এম.এ) মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মেহেদী হাছান রুবেল ভূঁইয়া।

চাটখিলে ডিয়ার ছোয়াদ এজেন্সির হজ্জ প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি মো.মেহেদী হাছান (রুবেল ভূঁইয়া) উপস্থিত নেতৃবৃন্দকে প্রতিষ্ঠানের চলমান উন্নয়ন এবং মাঠ সম্প্রসারণের কাজ সম্পর্কে অবগত করেন এবং মাদ্রাসা ক্যাম্পাস ঘুরিয়ে দেখান।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসার উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন-এইচ এম ইব্রাহিম

মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি মো.মেহেদী হাছান রুবেল ভূঁইয়া বলেন,ঐতিহ্যবাহী চাটখিল কামিল মাদ্রাসা একটি শতবর্ষী প্রতিষ্ঠান।জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৪ এ প্রতিষ্ঠানটি উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসা শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুর ১টার দিকে বাতাসে লাশের দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে থাকে। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে লামচর গ্রামের সর্দার বাড়ি সংলগ্ন ডোবায় অর্ধগলিত একটি মরদেহ দেখতে পায় তারা।

চাটখিলে বৃদ্ধের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার

বেলায়েত হোসেন আশা করেন দলীয় নেতৃবৃন্দ ও তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সহযোগিতায় সর্বসাধারনের ভালোবাসায় তিনি বিপুল ভোটে চাটখিল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন।

চাটখিলে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বেলায়েত এর মতবিনিময়

Comments are closed.