লক্ষ্মীপুরের মেয়ে নাজমুন নাহার দেশ-প্রকৃতিকে ভালোবেসে ৯৩ টি দেশ ভ্রমণ করেছেন

0 230

লক্ষ্মীপুরে নাড়ির টানে পা রেখেছেন ওয়াল্ড ট্রাভেলার নাজমুন। দেশ- প্রকৃতিকে ভালোবেশে একজন নারী হিসেবে একাই ৯৩টি স্বাধীন দেশ ঘুরে বিশ্ববাসীকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন নাজমুন নাহার। যিনি বাংলাদেশকে বিশ্বদরবারে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য কাজ করছেন। তার ভ্রমণে তিনি দেশের সাংস্কৃতি, প্রকৃতি, দেশের মানুষ সম্পর্কে জানাচ্ছেন বিভিন্ন দেশের মানুষকে। বিভিন্ন দেশের মানুষের সাথে আলাপচারিতায় নিজ জন্মস্থান লক্ষ্মীপুরকেও ব্র্যান্ডিং করেছেন। গর্ব করে তিনি বলেন, আমার জন্মস্থান বাংলাদেশের লক্ষ্মীপুর জেলায়। পাশাপাশি লক্ষ্মীপুরের মানুষজন, জনজীবন, প্রকৃতি সম্পর্কে ধারণা প্রদান করেন। সম্প্রতি একান্ত সাক্ষাতে আলোকিত চাটখিলকে নাজমুন নাজার বলেন, আমি বাংলাদেশের মানচিত্র নিয়ে ইতিমধ্যে ৯৩টি দেশ ভ্রমণ করেছি। বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্বের সাথে সাথে সুযোগ হলো নিজের জেলা সম্পর্কেও অন্যদের সাথে শেয়ার করার। নদীর পাড়ের একটি সুন্দর জেলা লক্ষ্মীপুর। এ জেলার মানুষ অতিথিপরায়ন, এখানের অনেক গুণী ব্যক্তিত্বের জন্ম। এ জেলা নারিকেল, সুপারি, সয়াবিন, ইলিশের জন্য বিখ্যাত। সবসময়ই দেশের সাথে সাথে নিজের জন্মস্থানের প্রশংসা করতে ভালোবাসেন।
উল্লেখ্য, এ নারী পরিব্রাজকের জন্ম ১৯৭৯ সালের ১২ ডিসেম্বর লক্ষ্মীপুরের সদর উপজেলার হামছাদী ইউনিয়নের গঙ্গাপুর গ্রামে। ব্যবসায়ী বাবা মোহাম্মদ আমিন ২০১০ সালে পৃথিবী ছেড়ে গেছেন। মা তাহেরা আমিন। ৩ ভাই এবং ৫ বোনের মধ্যে নাজমুন নাহার সবার ছোট।
নাজমুন নাহার নন্দনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণি পাশের পর দালাল বাজার নবীণ কিশোর (এনকে) হাইস্কুল থেকে এসএসসি এবং লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজ থেকে ১৯৯৪ সালে এইচএসসি পাশ করেন। এরপর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পর কিছুদিন সাংবাদিকতা করেন। পরে ২০০৬ সালে শিক্ষাবৃত্তি নিয়ে উচ্চতর পড়াশোনার জন্য যান সুইডেনে। সুইডেনের লুন্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে এশিয়ান স্টাডিজ বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। এ বছর শততম দেশ ভ্রমণ করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন নাজমুন নাহার।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।