মাটির নিচে বিশাল বড় গুপ্তধনের সন্ধান পাওয়া গেল শুধু স্বর্ণ আর স্বর্ণ

354

সোনা পছন্দ করে না এমন মানুষ নেই। পৃথিবীর শুরু থেকেই এই মূল্যবান সম্পদটি ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে বিশ্বজুড়ে।

তবে, আগে মানুষের এই সম্পদটি সম্পর্কে তেমন ধারণা ছিল না। জানা ছিল না সোনা উত্তোলনের কৌশল।

বিভিন্ন খনির সন্ধানও ছিল না তাদের কাছে। সময়ের বিবর্তনে মানুষ সোনা নিয়ে রাজত্ব করতে শিখেছে।

গড়ে তুলেছে বিভিন্ন সোনার মহল। বিশ্বজুড়ে থাকা এই সোনার ভাণ্ডার নিয়ে ঘটে যাওয়া নানা ইতিহাস জানা যাবে আজকের রকমারিতে।

ভারতের রাজস্থানে প্রচুর স্বর্ণের খোঁজ পেয়েছে ভারতীয় ভূতাত্ত্বিক বিভাগের বিজ্ঞানীরা।

অনুমান রাজস্থানের বাঁসবাড়া ও উদয়পুর জেলায় মোট ১১ দশমিক ৪৮ কোটি টন স্বর্ণ মজুত রয়েছে।

শুক্রবার সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন ভারতীয় ভূতাত্ত্বিক বিভাগের মহানির্দেশক এন কুটুম্বা রাও।

তিনি জানিয়েছেন, উদয়পুর ও বাঁসবাড়া জেলার ভুকিয়া ডোগরায় এই স্বর্ণের ভাণ্ডারের সন্ধান মিলেছে।

এ মহাপরিচালকের কথায়, ইতিমধ্যে রাজস্থানে ৩৫.৬৫ কোটি টন সিসার সন্ধান মিলেছে। এছাড়া ২০১০ সাল থেকে এখনো প‌র্যন্ত ৮.১১ কোটি টন তামার সন্ধান মিলেছে রাজস্থানে।

সোনা সব মানুষের জনপ্রিয় মূল্যবান খনিজ পদার্থ। আর সেই সুবাদে যেখানেই সোনার খনির সন্ধান মিলেছে সেখানেই মানুষ ছুটে গেছে।

তবে বিশ্বের সব দেশেই তো আর সোনার ভাণ্ডার নেই। হাতেগোনা কয়েকটি দেশে রয়েছে এই খনি।

উপমহাদেশীয় ভারতেই রয়েছে সোনার বিশাল ভাণ্ডার। বিজনেস ইনসাইডারের জরিপে বর্তমানে এশিয়ার এই অন্যতম বৃহত্তম দেশটির রয়েছে প্রায় ৫৫৭.৭ টন সোনার ভাণ্ডার।

ভারতীয়দের নিজেদের পুরনো বিশ্বাস যে, সোনার ওপর টাকা খরচ করলে তা ক্ষয় হয়। তাই হয়তো বিশাল এই ভাণ্ডারের ওপর তাদের কোনো নজর নেই।

এছাড়া রাজস্থানের সিরোহি জেলায় আরও খনিজের সন্ধান চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

পটাশ ও গ্লুকোনেটের মতো খনিজের জন্য সওয়াই মাধোপুরে খননকাজ চলছে বলে জানিয়েছেন কুটুম্বা রাও।

আরও পড়ুন

এ সময় বক্তারা আদালতের রায় ও ডাক্তারের চিকিৎসা পত্র বাংলা ভাষায় লিপিবদ্ধ করার জন্য জোরালো দাবি জানান।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

অল্পদিনের মধ্যেই এখানকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গতিশীল হবে জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো অন্যায়, অবিচার, অনিয়ম ও চাঁদাবাজ আমার কাছে প্রশ্রয় পাবে না।

নিজ এলাকায় জনগণের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন এইচ এম ইব্রাহিম এমপি

মফস্বলে সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম।

মফস্বল সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ – এইচ এম ইব্রাহিম

এইচ এম ইব্রাহিম বলেন,আমার নির্বাচনী এলাকার অসুবিধাগ্রস্থ মানুষদের মাঝে অতীতের ন্যায় এবারও আমি শীতবস্ত্র বিতরণ করেছি। আমার নেতাকর্মীদের মাধ্যমে আমি প্রায় পঞ্চাশ হাজার পরিবারের কাছে এই শীতবস্ত্র পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছি।

নোয়াখালী-১ আসনে এইচ এম ইব্রাহিম এমপির শীতবস্ত্র বিতরণ

গ্রেপ্তার হওয়া মোশারফ হোসেন টিটু (২২) কবিরহাট থানার সুন্দলপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের লাতু সওদাগর বাড়ির মৃত মিয়াধনের ছেলে। সে পেশায় একজন মোবাইল মেকানিক।

কবিরহাটে ভাবির ব্যক্তিগত ভিডিও নিয়ে দেবর গ্রেপ্তার

Comments are closed.