নোয়াখালীর ৩ জনসহ ৪ যুবককে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করবে দক্ষিণ আফ্রিকা

0 252

দক্ষিণ আফ্রিকার ফ্রি স্টেট প্রদেশ থেকে নিখোঁজ হওয়া সেই চার বাংলাদেশি দক্ষিণ আফ্রিকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতে রয়েছে।

তাদেরকে বাংলাদেশ হাইকমিশনার বা হাইকমিশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত যে কোনো কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানা গেছে। গত ২৮ আগস্ট থেকে ওই চার বাংলাদেশি নিখোঁজ রয়েছে।

নিখোঁজ চার বাংলাদেশি নাগরিকদের আত্মীয় স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নিখোঁজ পলাশ, ফরহাদ, রাসেল ও মহসিন নিরাপদে আছেন। তারা নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে দক্ষিণ আফ্রিকা সরকারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তত্তাবধানে দক্ষিণ আফ্রিকার যেকোনো কারাগারে কিংবা আশ্রয়কেন্দ্রে রয়েছেন। তবে কোন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তত্ত্বাবধানে রয়েছেন-এ ব্যাপারে তারা কিছুই বলতে পারেনি।

তবে চার বাংলাদেশি নাগরিক নিখোঁজ হওয়ার পর যে মামলা দায়ের করা হয়েছিল সেই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জানিয়েছেন, নিখোঁজ ৪ বাংলাদেশিকে তাদের কোনো আত্মীয় স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবেনা। আইনি জটিলতা থাকার কারণে একমাত্র বাংলাদেশ হাইকমিশনার বা হাইকমিশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত যে কোনো কর্মকর্তার কাছে তাদের হস্তান্তর করা হবে।

নিখোঁজ চার বাংলাদেশি নাগরিকের আত্মীয় স্বজনরা তাদের স্বজনদের ফিরে পেতে বাংলাদেশ হাইকমিশনার নুর-ই হেলান সাইফুর রহমানের সহযোগিতা চেয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত তিন মাস ধরে নিখোঁজ চার বাংলাদেশিকে উদ্ধারের নামে অনেক স্বঘোষিত নেতা নিখোঁজ হওয়া বাংলাদেশিদের পরিবারের কাছে থেকে আর্থিক সুবিধা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।

আরও পড়ুন

গণমাধ্যমে তথ্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞা জারি সংবিধানের মৌলিক অধিকার পরিপন্থী।

তথ্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞা,গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় সরাসরি হস্তক্ষেপ : ব্যারিস্টার মাহবুব…

ফজলুর রহমান মধু (৩৬) নোয়াখালী চাটখিল উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়ন শ্রীপুর গ্রামের সাব মিয়ার ছেলে।

পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী অথচ মানতে নারাজ এলাকার মানুষ

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।