নোয়াখালীতে ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচির উদ্বোধন

98

‘ভিক্ষাভিত্তি জীবন নয়, জীবন হোক কর্মময়’ এই শ্লোগানে নোয়াখালীতে সরকারি বরাদ্ধ ছাড়াই ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচি শুরু করা হয়েছে। শনিবার সদর উপজেলা পরিষদে এই কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক করেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান। এ সময় উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের ১২১ জন ভিক্ষুকের মাঝে তাদের সক্ষমতা অনুযায়ী রিকশা, সেলাই মেশিন, ছাগল, হাঁস-মুরগি, শাড়ি-চুড়ি, মাদুর তৈরির জন্য হোগলা পাতা ও চা বিক্রির সামগ্রীসহ বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ বিতরণ করা হয়।
এ উপলক্ষে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান। জেলা প্রশাসক মো. মাহবুব আলম তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার একেএম জহিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) উদয়ন দেওয়ান। স্বগত বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম সরদার। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কামাল উদ্দিন ও এওজবালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর জাহের, আকবর হোসেন সোহাগ ।
অনুষ্ঠানের শুরুতে ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচির উপর ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আবদুর রউফ মন্ডল। তিনি জানান, জেলার নয়টি উপজেলায় প্রাথমিক পর্যায়ে ৫৮২১ জন ভিক্ষুকের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের একদিনের বেতন ও সংশ্লিষ্ট উপজেলা পরিষদের আর্থিক সহযোগিতায় ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচি শুরু করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে এই কর্মসূচিকে আরো সম্প্রসারিত করা হবে। ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় আসা ভিক্ষুকরা যাতে আবার এই পেশায় ফিরে না আসে সেই বিষয়ে নজর রাখা হবে।

আরও পড়ুন

এ সময় বক্তারা আদালতের রায় ও ডাক্তারের চিকিৎসা পত্র বাংলা ভাষায় লিপিবদ্ধ করার জন্য জোরালো দাবি জানান।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

অল্পদিনের মধ্যেই এখানকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গতিশীল হবে জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো অন্যায়, অবিচার, অনিয়ম ও চাঁদাবাজ আমার কাছে প্রশ্রয় পাবে না।

নিজ এলাকায় জনগণের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন এইচ এম ইব্রাহিম এমপি

মফস্বলে সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম।

মফস্বল সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ – এইচ এম ইব্রাহিম

এইচ এম ইব্রাহিম বলেন,আমার নির্বাচনী এলাকার অসুবিধাগ্রস্থ মানুষদের মাঝে অতীতের ন্যায় এবারও আমি শীতবস্ত্র বিতরণ করেছি। আমার নেতাকর্মীদের মাধ্যমে আমি প্রায় পঞ্চাশ হাজার পরিবারের কাছে এই শীতবস্ত্র পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছি।

নোয়াখালী-১ আসনে এইচ এম ইব্রাহিম এমপির শীতবস্ত্র বিতরণ

গ্রেপ্তার হওয়া মোশারফ হোসেন টিটু (২২) কবিরহাট থানার সুন্দলপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের লাতু সওদাগর বাড়ির মৃত মিয়াধনের ছেলে। সে পেশায় একজন মোবাইল মেকানিক।

কবিরহাটে ভাবির ব্যক্তিগত ভিডিও নিয়ে দেবর গ্রেপ্তার

Comments are closed.