গণসংযোগকালে অসুস্থ হয়ে পড়লেন এমপি একরাম

হেলিকাপ্টারে দ্রুত ঢাকায় নেয়া হয়

183
অসুস্থ এমপি একরামুলের পাশে স্ত্রী শিউল একরামসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ।

আসন্ন নির্বাচনী মাঠে গণসংযোগকালে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াখালী-৪ (সদর-সুবর্ণচর) আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী।

আজ বুধবার দুপুরের দিকে জেলার সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার সঙ্গে থাকা নেতা কর্মীরা তাৎক্ষণিকভাবে তাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে।
সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এডভোকেট ওমর ফারুক জানান, নির্বাচনকে সামনে রেখে সকালে নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সাথে গণসংযোগ করতে সুবর্ণচরে যান একরামুল করিম চৌধুরী। সেখানে হঠাৎ গ্যাস্ট্রোলজিক্যাল সমস্যা দেখা দিলে অসুস্থ্য হয়ে পড়েন তিনি। পরে নেতাকর্মীরা তাকে অ্যাম্বুলেন্স যোগে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।
নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. সৈয়দ ফজলে রাব্বি আবদুল আজিম বলেন, ‘এমপি সাহেব গ্যাস্ট্রোলজিক্যাল সমস্যায় ভুগছেন। প্রাথমিক চিকিৎসা দেয় হয়েছে। তবে উন্নত চিকিৎসা নেয়ার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে ।
আরও পড়ুন

এ সময় বক্তারা আদালতের রায় ও ডাক্তারের চিকিৎসা পত্র বাংলা ভাষায় লিপিবদ্ধ করার জন্য জোরালো দাবি জানান।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

অল্পদিনের মধ্যেই এখানকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গতিশীল হবে জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো অন্যায়, অবিচার, অনিয়ম ও চাঁদাবাজ আমার কাছে প্রশ্রয় পাবে না।

নিজ এলাকায় জনগণের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন এইচ এম ইব্রাহিম এমপি

মফস্বলে সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম।

মফস্বল সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ – এইচ এম ইব্রাহিম

এইচ এম ইব্রাহিম বলেন,আমার নির্বাচনী এলাকার অসুবিধাগ্রস্থ মানুষদের মাঝে অতীতের ন্যায় এবারও আমি শীতবস্ত্র বিতরণ করেছি। আমার নেতাকর্মীদের মাধ্যমে আমি প্রায় পঞ্চাশ হাজার পরিবারের কাছে এই শীতবস্ত্র পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছি।

নোয়াখালী-১ আসনে এইচ এম ইব্রাহিম এমপির শীতবস্ত্র বিতরণ

গ্রেপ্তার হওয়া মোশারফ হোসেন টিটু (২২) কবিরহাট থানার সুন্দলপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের লাতু সওদাগর বাড়ির মৃত মিয়াধনের ছেলে। সে পেশায় একজন মোবাইল মেকানিক।

কবিরহাটে ভাবির ব্যক্তিগত ভিডিও নিয়ে দেবর গ্রেপ্তার

Comments are closed.