এক হাতে টাকা, অন্য হাতে মুরগীর বাচ্চা নিয়ে হাসপাতালে: মানবতার জন্য পুরষ্কৃত হল শিশুটি

176

নেট-দুনিয়ায় তোলপাড় হয়েছে একরত্তি মিজো বালকের ছবি। নিজের সাইকেলের চাকায় পিষ্ট মুরগিছানাকে বাঁচাতে চেষ্টার কসুর করেনি সে। একহাতে মুরগিছানা, অন্যহাতে একটি ১০ টাকার নোট নিয়ে সোজা গিয়ে হাজির হয়েছিল হাসপাতালে। যদিও মুরগির বাচ্চাটি ততক্ষণে মারা গিয়েছে।

মুরগিছানাকে বাঁচানোর আবেদন নিয়ে এক অবোধ বালকের মায়াভরা সেই মুখের ছবি সকলেরই মন কেড়ে নিয়েছে। অবশেষে তার নাম প্রকাশ্যে এসেছে। জানা গিয়েছে, তার নাম ডেরেক সি লালছানহিমা। বছর-সাতেকের ডেরেক স্থানীয় একটি স্কুলে পড়ে। তার মহাকীর্তির খোঁজ পেয়ে তাকে পুরস্কৃত করতে দেরি করেননি স্কুল কর্তৃপক্ষ।

মিজোরামের সাইরং এলাকার বাসিন্দা ডেরেককে রীতিমতো পুষ্পস্তবক দিয়ে সংবর্ধনা জানানো হয়েছে। দেওয়া হয়েছে একটি শংসাপত্রও। স্কুলের তরফে এই সমাদরে ছোট্ট ডেরেক বেজায় খুশি হলেও মুরগির বাচ্চাটিকে বাঁচাতে না পারার আফসোস যাচ্ছে না তার। মুরগিছানার কথা উঠতেই তার মুখের হাসি উধাও হয়ে যাচ্ছে।

স্কুলের শিক্ষকরা দেশজুড়ে খবরের শিরোনামে উঠে আসা ছাত্রের কাজের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। তাকে আশীর্বাদ করে বলেছেন, ডেরেক জানেই না কী কাণ্ড করে বসেছে। ও যেন অনেক বড় মানুষ হতে পারে। আর ওর স্বাভাবিক সরলতা যেন কোনও দিন নষ্ট না হয়।

সাইকেল চালাতে গিয়ে অসাবধানতায় মুরগির বাচ্চাটিকে চাপা দিয়ে ফেলে ডেরেক। সাইকেল থামিয়ে জখম মুরগিছানাটিকে উদ্ধার করে প্রথমে যায় নিজের বাড়িতে। পরিবারের লোকজনের কাছে অনুরোধ করে মুরগির বাচ্চাটিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য।

কিন্তু তারা দেখেই বুঝতে পারেন মুরগির বাচ্চাটি জীবিত নেই। সে কথা তারা ছেলেকে বোঝানোর চেষ্টাও করেন। কিন্তু কিছুতেই তা মানতে চায়নি খুদে ডেরেক। তার পর মুরগিছানা নিয়ে সটান চলে যায় স্থানীয় হাসপাতালে। মুরগির বাচ্চাটিকে বাঁচানোর আবেদন জানায়।

বিনিময়ে তার কাছে থাকা দশটাকার নোটও দিতে চায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। কর্তব্যরত জনৈক নার্স তাকে স্নেহভরে কাছে ডেকে বোঝান। ডেরেকের একটি ছবিও তুলে রাখেন ওই নার্স। সেই ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন ‘Sanga Says’ প্রোফাইলের একজন ব্যক্তি। বাকিটা ইতিহাস।

আরও পড়ুন

বিশেষ মেহমান হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বিএম এর নোয়াখালী জেলার সভাপতি ডাঃ এম এ নোমান,চাটখিল কামিল (এম.এ) মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মেহেদী হাছান রুবেল ভূঁইয়া।

চাটখিলে ডিয়ার ছোয়াদ এজেন্সির হজ্জ প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি মো.মেহেদী হাছান (রুবেল ভূঁইয়া) উপস্থিত নেতৃবৃন্দকে প্রতিষ্ঠানের চলমান উন্নয়ন এবং মাঠ সম্প্রসারণের কাজ সম্পর্কে অবগত করেন এবং মাদ্রাসা ক্যাম্পাস ঘুরিয়ে দেখান।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসার উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন-এইচ এম ইব্রাহিম

মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি মো.মেহেদী হাছান রুবেল ভূঁইয়া বলেন,ঐতিহ্যবাহী চাটখিল কামিল মাদ্রাসা একটি শতবর্ষী প্রতিষ্ঠান।জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৪ এ প্রতিষ্ঠানটি উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

চাটখিল কামিল মাদ্রাসা শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুর ১টার দিকে বাতাসে লাশের দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে থাকে। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে লামচর গ্রামের সর্দার বাড়ি সংলগ্ন ডোবায় অর্ধগলিত একটি মরদেহ দেখতে পায় তারা।

চাটখিলে বৃদ্ধের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার

বেলায়েত হোসেন আশা করেন দলীয় নেতৃবৃন্দ ও তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সহযোগিতায় সর্বসাধারনের ভালোবাসায় তিনি বিপুল ভোটে চাটখিল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন।

চাটখিলে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বেলায়েত এর মতবিনিময়

Comments are closed.