আবারও চেনা ছন্দে লিওনেল মেসি উড়িয়ে দিল বার্সা

122

আবারও চেনা ছন্দে লিওনেল মেসি। ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পায়ে ফোটালেন ফুটবলের শৈল্পিক ফুল। নিজে করলেন জোড়া গোল। পাশাপাশি সতীর্থদের গোলেও অবদান রাখলেন। তাতে উড়ে গেল টটেনহাম। চ্যাম্পিয়নস লিগে স্পার্সদের ৪-২ গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা।

বুধবার লন্ডনের ওয়েম্বলিতে আতিথ্য গ্রহণ করে বার্সা। শুরুটা হয় দাপুটে। টটেনহাম গোলরক্ষকের মারাত্মক ভুলে ৯২ সেকেন্ডে গোল পেয়ে যান কাতালানরা। মেসির বাড়ানো বল ধরে বাঁ দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে যান জর্ডি আলবা। তাকে ঠেকাতে ছুটে যান হুগো লরিস। এতে গোলপোস্ট ফাঁকা হয়ে যায়। দ্রুত ডান দিকে ফিলিপে কুতিনহোকে পাস দেন আলবা। তা থেকে গোল করতে ভুল করেননি ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার।

পিছিয়ে পড়ে আক্রমণের গতি বাড়ায় টটেনহাম। এতে ঘটে হিতে বিপরীত। খেলা ওপেন হয়ে যায়। ফলে ফের গোল পেয়ে যায় বার্সা। ২৮ মিনিটে দারুণ ভলিতে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ইভান রাকিটিচ। এতেও ছিল মেসির ছোঁয়া। প্রথমার্ধে টটেনহাম একমাত্র সুযোগটি পায় ৩৩ মিনিটে। সন হিউং মিনের বজ্রগতির শট একজনের পায়ে লেগে দিক পাল্টে জালে জড়াতে যায়। ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন।

দ্বিতীয়ার্ধে ব্যবধান কমাতে মরিয়া হয়ে ওঠে টটেনহাম। সাফল্যের মুখও দেখে। ৫২ মিনিটে দারুণ নৈপুণ্যে ব্যবধান কমান হ্যারি কেইন। বাঁ দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে রক্ষণসেনা নেলসন সেমেদোকে এক ঝটকায় ফেলে দিয়ে ডান পায়ের বিদ্যুৎগতির শটে নিশানাভেদ করেন তিনি।

তবে টটেনহামের সেই আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। ৫৬ মিনিটে আলবাকে বায়ে পাস দিয়ে দ্রুত ডি-বক্সে ঢুকে যান মেসি। ফিরতি বল পেয়ে পোস্ট ঘেঁষে লক্ষ্যভেদ করেন ছোট ম্যাজিসিয়ান। এর পর প্রতি আক্রমণে ওঠে টটেনহাম। ফের গোল পেয়ে যায় স্বাগতিকরা। ৬৬ মিনিটে ব্যবধান কমান এরিক লামেলা। এতে রোমাঞ্চকর শেষের আভাস দেয় ম্যাচ।

তবে শেষ পর্যন্ত তা আলোর মুখ দেখেনি। নির্ধারিত সময়ের অন্তিম মুহূর্তে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে সব অনিশ্চিয়তার ইতি টানেন মেসি। লুইস সুয়ারেজের বাড়ানো বল ডি-বক্সে ধরে বাঁ পায়ের জোরালো শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন বার্সা অধিনায়ক। এবারের আসরে এটি তার পঞ্চম গোল

আরও পড়ুন

অল্পদিনের মধ্যেই এখানকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গতিশীল হবে জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো অন্যায়, অবিচার, অনিয়ম ও চাঁদাবাজ আমার কাছে প্রশ্রয় পাবে না।

নিজ এলাকায় জনগণের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন এইচ এম ইব্রাহিম এমপি

মফস্বলে সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম।

মফস্বল সাংবাদিকতা করা একটা চ্যালেঞ্জ – এইচ এম ইব্রাহিম

এইচ এম ইব্রাহিম বলেন,আমার নির্বাচনী এলাকার অসুবিধাগ্রস্থ মানুষদের মাঝে অতীতের ন্যায় এবারও আমি শীতবস্ত্র বিতরণ করেছি। আমার নেতাকর্মীদের মাধ্যমে আমি প্রায় পঞ্চাশ হাজার পরিবারের কাছে এই শীতবস্ত্র পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছি।

নোয়াখালী-১ আসনে এইচ এম ইব্রাহিম এমপির শীতবস্ত্র বিতরণ

গ্রেপ্তার হওয়া মোশারফ হোসেন টিটু (২২) কবিরহাট থানার সুন্দলপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের লাতু সওদাগর বাড়ির মৃত মিয়াধনের ছেলে। সে পেশায় একজন মোবাইল মেকানিক।

কবিরহাটে ভাবির ব্যক্তিগত ভিডিও নিয়ে দেবর গ্রেপ্তার

Comments are closed.